×

স্কুলের মধ্যেই ইউনিফর্ম পরে সুপারহিট হিন্দি গানে দুর্দান্ত নাচ একদল ছাত্রীর, ভাইরাল ভিডিও

রাজ্য সরকারের অধীনে একটি হাইস্কুলে পাঁচটি তরুণী তাঁদের স্কুল ফাংশনে বলিউডের 'চাক দে ইন্ডিয়া' গানের সঙ্গে দুর্দান্ত নাচছেন।

করোনা মরসুম কাটিয়ে গতবছরেই একেবারে জোরকদমে স্কুল কলেজ চালু হয়েছে। দু বছর পর স্কুল-কলেজে যাওয়ার আনন্দ একেবারে ছেঁকে ধরেছে ছাত্র-ছাত্রীদের মনে। সম্প্রতি একটি দুর্দান্ত স্কুলের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে দেখা গিয়েছে, একদল ছাত্রীরা স্কুল পোশাকেই খোলা ক্লাসরুমের মধ্যে একটি হিন্দি গানের তালে দূর্দান্ত কোমর দোলালেন, তাঁদের শরীরের হিল্লোল দেখে কুপোকাত সকলেই। তাঁদের দেখে স্পষ্ট যে, তাঁরা বেশ আনন্দিত এতদিন স্কুলে যেতে পেরে। সঙ্গে তাঁদের নিজেদের প্রতি আত্মবিশ্বাসও জন্মেছে।

ভিডিওতে দেখানো গিয়েছে, রাজ্য সরকারের অধীনে একটি হাইস্কুলে পাঁচটি তরুণী তাঁদের স্কুল ফাংশনে বলিউডের ‘চাক দে ইন্ডিয়া’ গানের সঙ্গে দুর্দান্ত নাচছেন। শাহরুখ খান অভিনীত এই ছবিটি বহুদিন আগে মুক্তি পেলেও এখনও এই ছবির প্রতিটি গান আকর্ষণীয় হয়ে রয়েছে দর্শকদের মনে। ক্রীড়া মুলক এই ছবিতে শাহরুখ দেশের মহিলা হকি টিমের কোচ ছিলেন। সবকটি তরুণী স্কুল ইউনিফর্মেই নেচেছেন। তাঁদের ইউনিফর্মের বর্ণ ছিল নীল-সাদা। আর সাদা কালারের ওড়না। অসাধারণ সাবলীলতার সহিত তাঁরা কোমর দোলালেন। তাঁদেরকে ঘিরে গোটা স্কুল আনন্দে মেতে উঠল।

আসলে স্কুল এমন একটি প্রতিষ্ঠান, যেখানে নতুন নতুন বন্ধু হয়, জীবনে পথ গড়া, মানুষের মতন মানুষ হওয়া, লেখাপড়ার পাশাপাশি পরস্পরের সঙ্গে সহযোগিতা সবটাই একসঙ্গে শেখা যায়। আর স্কুলের বন্ধুদের সঙ্গে একটি নিবিড় সম্পর্কও গড়ে ওঠে। আধুনিক যুগের অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র হল সোশ্যাল মিডিয়া। মহামারীর সময় যখন সারাদেশে লকডাউন চলেছে তখন একমাত্র সোশ্যাল মিডিয়াই সবাইকে বিনোদন দিয়েছে, তাই সোশ্যাল মিডিয়ার চাহিদা এখন তুঙ্গে। এখানে যেমন প্রতিভার বিকাশ ঘটছে, তেমনি প্রতিভার মর্যাদা অনুসারে নির্দিষ্ট ইনকামও হচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে আমজনতা থেকে সেলিব্রিটিদের ব্যক্তিগত জীবনে ঢুকতে আমাদের বেশি সময় লাগেনা। যার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত ভাইরাল হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের মজার মজার এবং বিরল দৃশ্যের ভিডিও। কিছু কিছু ভিডিও আমাদের নানা দুঃখ-কষ্টকে এক মুহূর্তে ভুলিয়ে দিতে সক্ষম, আবার কিছু কিছু ভিডিও দেখে আমরা শিউরে যাই। আবার কিছু কিছু ভিডিও দেখলে মনে হয়, মনুষ্যত্ব এখনও বেঁচে রয়েছে কোথাও না কোথাও। কিছু কিছু ভিডিও আমাদের অণুপ্রাণিতও করছে বিভিন্ন সময়ে। আসলে মানুষ সময়ের স্রোতে ভাসমান প্রাণী। সময়ের পরিবর্তন মানুষকেও প্রতিনিয়ত বদলে দিচ্ছে।

Related Articles