×

‘দিদি নং ১’-এর হাতে মাছ নিয়ে ঊষসীর পিছনে দৌড় রচনার, মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

‘জি বাংলা’র (Zee Bangla) বিখ্যাত রিয়ালিটি শো ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ (Didi no 1)-এর মঞ্চে এসেছিলেন জনপ্রিয় জুটি।

বাংলার টপ গেমশো ‘দিদি নং ওয়ান’ (Didi no 1) এর মঞ্চ প্রতি উইকেন্ডেই একেবারে জমে ওঠে! বাংলার একমাত্র রিয়্যালিটি শো এটি, যেটি প্রায় ১১ বছর ধরে জী বাংলার পর্দায় সমান জনপ্রিয়তার সঙ্গে রাজ করছে! শুধু রাজ্যে নয় দিদি নং ওয়ান-এর জনপ্রিয়তা এখন দেশ ছেড়ে বিদেশেও পৌঁছেছে। কারণ মাঝে মাঝেই অনেক বিদেশী দিদিরা এই শোয়ে খেলতে আসেন! আর এই জনপ্রিয়তার কারণ হিসেবে বলা চলে, অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জীর (Rachana Banerjee) অসাধারণ উপস্থাপনা। তাঁর সঞ্চালনার জন্যই এই শোয়ের জনপ্রিয়তা এখন আকাশছোঁয়া।

কারুর দুঃখের কথা শুনে যেমন আবেগে ভেসে যাচ্ছেন তেমনি প্রতিযোগীদের নিয়ে হইহুল্লোড়েও মেতে উঠছেন রচনা। কিন্তু
এ কি ঘটল! জুন আন্টি কে কয়েকটি ল্যাটা মাছ একেবারে কুপোকাত করে দিল। এক সময় স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘শ্রীময়ী’ ধারাবাহিকের মাধ্যমে দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন অভিনেত্রী ঊষসী চক্রবর্তী। ধারাবাহিকে তিনি নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করলেও তাঁর অভিনয়ের দরুন ধারাবাহিকটি বেশি খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। এমনকী রূপে ও গুনে অভিনেত্রীর কোনো জবাব নেই। যেমন মিষ্টি তাঁর চেহারা তেমনি ‘ওয়েল এডুকেটেড’-এই অভিনেত্রী। তবে শ্রীময়ী শেষ হয়ে গিয়েছে অনেকগুলি মাস কেটে গিয়েছে। তাঁর দেখা পাওয়া যায়নি এখনও কোথাও। শোনা যাচ্ছে, কোনও এক ওয়েবসিরিজে আবারও ইন্দ্রানী হালদারের সঙ্গে জুটি বাঁধছেন ঊষসী।

শ্রীময়ী ধারাবাহিকের সময় তাঁর কয়েকটি ছবি এবং সংলাপ দারুণ মিম হিসেবে সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজত্ব করেছিল। তবে এবার তিনি একেবারে পরাস্ত হয়ে গেলেন, কয়েকটি ল্যাটা মাছের কাছে। ব্যাপারটি ঠিক কী? এর সঙ্গে দিদি নং 1-এর যোগসূত্রই বা কি! আসলে সম্প্রতি এই শোতে উপস্থিত ছিলেন টেলিপর্দার বিখ্যাত দুই খলনায়িকা ‘জুন আন্টি’ ওরফে উষসী চক্রবর্তী (Ushasie Chakroborty) এবং কাঞ্চনা মৈত্র (Kanchanna Moitra)। বাংলা টেলিভিশন জগতে তাঁদের দাপট বহুকাল ধরে একইরকম চলছে। তবে রিয়েল লাইফে এই দুজনেই ভীষণ প্রাণখোলা এবং হাসিখুশি প্রকৃতির মানুষ। এদিন দিদিদের দেওয়া হয়েছিল ল্যাটা মাছ ধরার চ্যালেঞ্জ। সেখানেই ঘটে বিপদ। কাঞ্চনা ঠিকঠাকভাবে খেলা সম্পন্ন করতে পারলেও ঊষসী একেবারে ল্যাজে গোবরে হয়ে যায়। তাঁকে ল্যাটা মাছ ধরতে বলা হলে, সে প্রথমে ভয়ে ভয়ে এগিয়ে ল্যাটা মাছ ধরতে যায় কিন্তু বেজায় চিৎকার করে ওঠেন জুন আন্টি। তাঁর এই বেহাল অবস্থায় হেসে লুটোপুটি খান রচনা।

তবে শেষ পর্যন্ত ঊষসী ল্যাটা মাছ ধরতে ব্যর্থ হন, যদিও তিনি খেলায় অংশগ্রহণ না করে পুরো সময়টাই ব্যয় করেন। কিন্তু শেষমেষ সেটি ধরতে দেখা যায় শোয়ের সঞ্চালক রচনা ব্যানার্জিকে। তবে এখানেই শেষ নয়। মাছটি ধরে তিনি রীতিমতো দৌড় দিতে শুরু করেন জুন আন্টির পিছনে। কারণ তিনি মাছ ধরতে যেমন তিনি ভীত তেমনি জ্যান্ত মাছ দেখেও কুপোকাত। এই দৃশ্য দেখে রীতিমতো হেসে লুটোপুটি সকলেই। এত বড় অভিনেত্রী হয়ে যে সামান্য মাছের কাছে ল্যাজেগোবরে হয়ে যেতে পারেন ঊষসী, তা বোধহয় দিদি নং ওয়ান শোটি না দেখলে জানাই যেত না।

Related Articles