×

অবিশ্বাস্য! বাস্তবে দেখা মিলল দু’মাথাওয়ালা বিরল প্রজাতির সাপ, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা নানা পশু পাখিদের ভিডিও খুব সহজে দেখতে পায়।

সাপ এমন একটি প্রাণী যাকে সকলে ভয় পান তেমনি এই প্রাণীর বিষয়ে জানতে লোকে আকর্ষিতও হয়ে থাকেন। আবার একদল মানুষ সাপকে পুজো করে থাকেন। আমরা অনেক সময় যে মানুষ দু রকম কথা বলে থাকেন তাদের কে ‘দু-মুখো সাপ’ বলে অবিহিত করা হয়। তবে সাপের যে সত্যি দুটো মুখ হয়, এ কথা চট করে বললে কেউই বিশ্বাস করবেন না। শুনলেও অনেকে মিথ্যা বা ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়ে থাকেন সে কথা। তবে সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে সাপের দুটো মুখ হওয়ার বিষয়ে নতুন করে ধারণা গড়ল।

সাপের অসংখ্য প্রজাতি আছে। পৃথিবীতে সবচেয়ে ক্ষুদ্র আকৃতির সাপটি কেঁচোর মতো এবং সবচেয়ে বড় সাপ হল অ্যানাকোন্ডা। অধিকাংশ সাপই বিষধর নয়। মানুষ সাপের বিষয়ে মনগড়া ভুল ধারণা করতেন। তবে ইন্টারনেট আসার পর সাপ সম্পর্কে প্রচুর ভিডিও এবং ছবি আমরা সহজেই দেখতে পাই। এইভাবেই সাপ সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ছে এবং দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা ভুল ধারণা বদলাচ্ছে। আসলে আর পাঁচটা প্রাণীর মতই সাপ। পরিবেশ এবং বাস্তুতন্ত্রকে বাঁচিয়ে রাখতে সাপ খুব গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।

“Siegelreptiles” নামক ইউটিউব চ্যানেল থেকে শেয়ার করা ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে,দুমাথা বিশিষ্ট ‘অ্যালবিনো হন্ডুরান মিল্কস্নেক’ (Albino Honduran Milk Snake) সাপটি একটি জলের পাত্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং পাত্রে মুখ ডুবিয়ে জল খাচ্ছে।তবে একটি মুখ দিয়ে না দুটি মুখ ডুবিয়ে জল খাচ্ছে। তার দুটি মুখই কর্মক্ষম।

সাপটি উজ্জ্বল কমলা রঙের এবং দেখে শান্ত বলেই মনে হয়। লোককথাতেও তাদের আশ্চর্য সব কাহিনী পাওয়া যায়। তেমনি এক সাপের কাহিনীর সাক্ষী হয়ে রইলো গোটা নেটদুনিয়া। প্রসঙ্গত, ভিডিওতে দেখতে পাওয়া সাপের দাম ৫০,০০০ ডলার।

Related Articles