×

লাল কাপড় দিয়ে শীতের লেপ তৈরি হয় কেন? পুরোটা জানলে চোখ উঠবে কপালে

শীতকাল আসতে না আসতেই গরম জামাকাপড়ের পাশাপাশি বাজারে ধুম লেগে যায় লেপ ও কম্বল কেনার।

পুজোর আমেজ শেষ হতে না হতেই শীতের আগমন ঘটে। আর শীত মানেই সোয়েটার, লেপ ও কম্বল নামানোর পালা। তবে বর্তমান যুগে বাজারে হরেক রকম নিত্যনতুন ডিজাইনের লেপ কম্বল কিনতে পাওয়া যায়। আধুনিক প্রযুক্তিতে বানানো এ ধরনের লেপ ও কম্বলের চাহিদাও আগেকার দিনের লেপ, কম্বলের চাইতে কয়েক গুণ বেশি। শীতকাল আসতে না আসতেই গরম জামাকাপড়ের পাশাপাশি বাজারে ধুম লেগে যায় লেপ ও কম্বল কেনার।

তবে একটি ছোট্ট জিনিস অনেকেই হয়তো খেয়াল করেন না যে, বেশিরভাগ লেপ, কম্বল কেন লাল কাপড় দিয়ে সেলাই করা হয়। বিষয়টি খুবই সাধারণ মনে হলেও এর উত্তর কিন্তু বেশ মজার। আর যা হয়তো অনেকেই জানেন না। তবে আপনারও কোনোদিন মাথায় এসেছে কি বাজারে অন্যান্য রঙের কাপড় থাকতে শুধুমাত্র লাল কাপড় দিয়েই কেন সেলাই করা হয় লেপ, কম্বল? আসুন তাহলে আজকের এই প্রতিবেদন থেকে জেনে নিন এর ইতিহাস।

কথিত রয়েছে যে, লাল কাপড় দিয়ে লেপ ও কম্বল তৈরি করা প্রথম শুরু হয় বাংলা, বিহার ও ওড়িশার নবাব মুর্শিদকুলি খানের আমলে। সেসময় শীতের কাপড় থেকে বাঁচতে নবাবের জন্য বিশেষ লেপ তৈরি করা হতো। আর সেসময় মুর্শিদাবাদে লম্বা কার্পাস তুলোর চাষ রমরমা হওয়ার দরুন তুলো প্রথমে রঙে ডুবিয়ে মোলায়েম মখমলের কাপড়ে ভরা হতো। এভাবেই তৈরি হতো সে সময়ের রাজাদের লেপ। আর তার ওপর ছড়িয়ে দেওয়া হতো বিভিন্ন ধরনের সুগন্ধি আতর।

তবে এ ধরনের লেপ তখন সাধারণ মানুষের সাধ্যের নাগালে ছিল না। সে কারণেই সাধারণ মানুষ লাল কাপড়ের মধ্যে তুলো ভরে লেপ তৈরি করা শুরু করেন। যদিও এটিরও একটি বিপরীতমত রয়েছে।‌ অনেকের মতে, লেপ যেহেতু ভারী হয় ও সহজে ধোয়া যায় না তাই এতে লাল রঙের কাপড় ব্যবহার হয়। কারন লাল রঙের উপর নোংরা বসলে সহজে বোঝা যায় না। আবার অনেকের মধ্যে এগুলো শুধুমাত্র লোককথা এর কোনোরকম সত্যতা নেই। তবে ভিন্নমতে অনেকে বলেন যে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এ ধরনের রঙ ব্যবহার করা হয়।

Related Articles