×

এই ভাবে বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু ও পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ‘লাস অমলেট’, একবার খেলে প্রেমে পড়ে যাবেন

এইভাবে ডিম দিয়ে বানিয়ে ফেলুন অসাধারণ স্বাদের এই রেসিপি।

কমবেশি প্রত্যেকেরই ডিম একটি প্রিয় খাবার। যদি উচ্চ রক্তচাপজনিত কোনোরকম সমস্যা না থাকে তাহলে ডিম শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটি খাবার। ডিমে থাকে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ। এর পাশাপাশি প্রোটিনের একটি অন্যতম ভান্ডার ডিম। ডিমের সাদা অংশটি প্রোটিনে পরিপূর্ণ। এর পাশাপাশি ডিমের কুসুমে মজুদ রয়েছে ফ্যাট, আয়রন ও ভিটামিনের মতো অত্যন্ত উপকারী উপাদান। এছাড়াও চিকিৎসকদের মতে শৈশবকালে পর্যাপ্ত পরিমাণের ডিম গ্রহণ করলে মানুষের মেধা বিকাশিত হয় ও হাড়ের গঠনও মজবুত থাকে।

এছাড়াও ডিমের মধ্যে মজুদ ‘ভিটামিন এ’ থাকার ফলে দৃষ্টিশক্তি উন্নত হয়। তবে বলা হয় যে ডিম ভেজে খেলে ডিমের মধ্যে থাকা সমস্ত পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়। তবে একঘেয়ে ডিম সেদ্ধ খেতে খেতে অনেকেরই মুখ বেজার হয়ে যায়। তাই আজকের এই প্রতিবেদনে রইল ডিমের একটি এমন ধরনের রেসিপি সম্পর্কে যা সুস্বাদু হওয়ার পাশাপাশি হবে পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ। আসুন তাহলে জেনে নিন কিভাবে এই রেসিপিটি বানাবেন।

উপকরণ-
১. ডিম
২. নুন
৩. তেল
৪. চিনি
৫. দুধ

প্রণালী-

প্রথমে একটি পাত্রে চাহিদা অনুযায়ী ডিম নিয়ে ফাটিয়ে নিতে হবে। এরপর ডিমগুলো ভালোমতো ফেটিয়ে তাতে ৪ বড়ো চামচ চিনি ও সামান্য পরিমাণ নুন যোগ করতে হবে। এবার সমস্তটা ভালোকরে মিশিয়ে আরেকটি পাত্র নিয়ে সেটার গায়ে তেল লাগিয়ে নিতে হবে। এরপর তেল লাগানো পাত্রে ফেটিয়ে রাখা ডিমগুলিকে ঢেলে দিতে হবে।

তারপর ডিমের মধ্যে সমপরিমাণ দুধ ঢেলে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এবার একটি কড়াই গরম করে তাতে জল ঢেলে জল গরম করতে হবে। এরপর কড়াইয়ে স্ট্যান্ড রেখে সেই স্ট্যান্ডে ডিম ও দুধের মিশ্রণের পাত্রটি রেখে ঢাকা দিয়ে দিতে হবে।

তারপর মিনিট ২০ পর পাত্রটির ঢাকনা খুলে পাত্রটিকে কড়াই থেকে নামিয়ে নিতে হবে। এবার পাত্রটিকে কিছুক্ষণ ঠান্ডা করে‌ সাবধানে ধারালো ছুরির সাহায্যে ভাপিয়ে নেওয়া ডিমটিকে বের করে নিতে হবে। ব্যাস তাহলেই তৈরি সুস্বাদু ও পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ‘লাস অমলেট’।

Related Articles