×

ফুলকপির পাতা দিয়ে বানিয়ে ফেলুন জিভে জল আনা এই রেসিপি, নিমেষে ফাঁকা হবে এক থালা ভাত

ফুলকপি পাতা দিয়ে খুব সহজে বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু এই রেসিপি।

পশ্চিমবঙ্গে শীতে কাহিল সবাই। শীতকাল মানেই আনন্দের মরসুম, খাওয়া, বেড়ানো সবাই একসঙ্গে চলে। তবে এই সময়ে বাজারে যে সমস্ত সব্জি পাওয়া যায়, তা বাকি সময়ে পাওয়া যায় না। আর শীতকাল মানেই বাজারে ফুলকপি, বাধাকপি, মটরশুঁটি, গাজর, মুলো, পালংশাক ইত্যাদি সব্জির চাহিদা আকাশ ছোঁয়া। যা দিয়ে বাড়িতে তৈরি করা যায় এক একটি লোভনীয় স্বাদের রেসিপি, যা হার মানায় মাংস, মাছের বিভিন্ন রেসিপিকে। শীতকালে সবজির মধ্যে ফুলকপি অন্যতম জনপ্রিয় সব্জি। যাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি সি ও মিনারেল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এছাড়া এই সব্জি স্তন ক্যান্সারেরও প্রকোপ কমিয়ে দেয়। এছাড়াও শীতকালে ফুলকপি আমিষ, নিরামিষ দুইভাবেই খাওয়া যায়। তবে রান্নার সময় ফুলকপির পাতা অনেকেই ফেলে দেন। কিন্তু জানেন কি, ফুলকপির পাতা দিয়েই এমন একটি রেসিপি বানানো যায়, যা খেলে আঙ্গুল চাটবেন। তবে ওপার বাংলার অনেকেই ফুলকপির পাতা ফেলে না দিয়ে ভাল করে ধুয়ে চচ্চড়ি বানিয়ে খান। জেনে নিন কম উপকরণেই কি ভাবে এই রেসিপিটি বানাবেন।

উপকরণ

  • ফুলকপির পাতা
  • জল
  • নুন
  • কাঁচা লঙ্কা
  • রসুন
  • ধনেপাতা
  • সর্ষের তেল
  • শুকনো লঙ্কা
  • কালোজিরে
  • চিনি
  • হলুদ গুঁড়ো

প্রণালী

প্রথমে ফুলকপির পাতাগুলি ভাল করে ধুয়ে নিয়ে জল ঝরিয়ে নিন। এরপর পাতা থেকে ডাঁট ছাড়িয়ে গ্যাসে কড়াই বসিয়ে কিছুটা জল দিয়ে ফুলকপির পাতাগুলি ভাপিয়ে নিন।

তবে সেই জলে সামান্য নুন দিয়ে নেবেন। এবার সেদ্ধ ফুলকপির পাতা ঠান্ডা করে নিয়ে মিক্সার গ্রাইন্ডারে বেটে নিন। তবে পাতার সঙ্গেই বেটে নিতে হবে কয়েকটি গোটা কাঁচালঙ্কা, কোয়া রসুন এবং কিছু পরিমাণ ধনেপাতা। সমস্ত উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিন।

এরপর গ্যাসে কড়াই বসিয়ে সরষের তেল গরম করে প্রথমে শুকনো লঙ্কা এবং এক চামচ কালোজিরা ফোড়ন দিয়ে কয়েক সেকেন্ড নেড়ে চেড়ে নিয়ে ফুলকপির পাতার পেস্টটা দিয়ে দিন।

তারপর স্বাদ অনুসারে নুন, চিনি ও হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ভাল করে কষিয়ে বেশ কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে শুকনো শুকনো করে নামিয়ে নিলেই তৈরি এই সুন্দর রেসিপিটি।

Related Articles