×

আলু, ডিম ও সবজি দিয়ে বানিয়ে ফেলুন দুর্দান্ত স্বাদের সকাল বা বিকেলের নাস্তা, শিখে নিন রেসিপি

আটা ও আলু দিয়ে চটজলদি বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু জলখাবার।

প্রতিদিন নিত্য নতুন খাবার কে না ট্রাই করতে চান বলুন। বিশেষ করে সন্ধ্যা ও সকালের ব্রেকফাস্টের জন্যে চাই প্রতিদিন নতুন নতুন খাবার, বাড়ির বাচ্চা থেকে বুড়ো সবারই যেন একটাই আব্দার। বাচ্চাদের টিফিনে নতুন নতুন খাবার, অন্যদিকে যারা অফিসে কর্মরত, তাঁরাও যদি টিফিনে নিত্য নতুন খাবার দেখে তাহলেও একেবারে মেজাজটাই ভালো হয়ে যায় তাঁদের। সন্ধেবেলা চায়ের সঙ্গে বা বাচ্চাদের টিফিনের জন্য একেবারে জমে যাবে। আসলে সারাদিনের খাবারের মধ্যে ব্রেকফাস্ট বা সন্ধ্যাকালীন খাবারের মজাটাই আলাদা। সকালে ঘুম থেকে উঠে বা সন্ধ্যেবেলা অফিস থেকে ফিরেই যদি চোখের সামনে লোভনীয় খাবারের দেখা মেলে তাহলে মনটা একেবারে জুড়িয়ে যায়, দিনটাও ভালো থাকে। আজ আপনাদের মুশকিল আসান করবে ১০ মিনিটে বানানো যায় নামমাত্র তেলের হেলদি টেস্ট এই জলখাবারটি।

উপকরণ

১. আটা
২. আলু লম্বা লম্বা করে কুচি করা
৩. বরবটি কুচি, পেঁয়াজ কুচি ২ টো
৪. লঙ্কাকুচি
৫. হলুদ গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো
৬. খাবার সোডা
৭. ডিম
৮. নুন
৯. সামান্য চিনি
১০. নামমাত্র তেল

প্রণালী

প্রথমে একটা বাটিতে পেঁয়াজ কুচি, লঙ্কা কুচি, আলু কুচি ও বরবটি কুচি নিয়ে তার মধ্যে সামান্য হলুদ গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো ও পরিমাণ মত নুন দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর সবজি ও মশলা মিক্স করে নেওয়ার পর একই পাত্রে একটা ডিম ফেটিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

এবার অন্য একটি পাত্রে আটা, পরিমাণ মত নুন, সামান্য বেকিং সোডা মিশিয়ে তাতে অল্প অল্প করে জল দিয়ে মেখে নিন। এরপর আটা মাখা হয়ে গেলে কিছুক্ষণ ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। এরপর কড়াইয়ে ফ্রাইং প্যান বসিয়ে তাতে এক চামচ তেল গরম করে সমস্ত সবজি ও ডিমের মিশ্রণ দিয়ে নেড়েচেড়ে ঝুর ঝুরে করে নিন। এটাই পুর হিসাবে ব্যবহার করতে হবে।

এরপর আটা মাখা থেকে লেচি বানিয়ে হাতে করেই লেচি থেকে বাটির মত আকার করে তার মধ্যে পুর দিয়ে মুখ বন্ধ করে নিন। এরপর হাতের সাহায্যেই চেপে চেপে গোলাকৃতি করে নিন। এরপর গরম ফ্রাইং প্যানে বা রুটি সেকার তাওয়াতে পুর ভরা রুটিগুলিকে দিয়ে এপিঠ ওপিঠ করে সেঁকে নিলেই তৈরি হেলদি জলখাবারটি।

Related Articles