×

২ কাপ আটা ও ২ টো আলু দিয়ে বানিয়ে ফেলুন দুর্দান্ত স্বাদের জলখাবার, শিখে নিন রেসিপি

আলু ও আটা দিয়ে খুব কম সময়ের মধ্যে বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু জলখাবার, শিখে নিন পদ্ধতি।

প্রতিটি বাড়ির গৃহিনীদেরই সকাল এবং বিকেলের জলখাবারের জন্য ঝক্কি পোহাতে হয়। আবার অনেক সময় বাড়িতে হঠাৎ অতিথি চলে এলে অনেকে ভেবেই পাননা যে কিভাবে অতিথি আপ্যায়ন করা যাবে। তাই বাধ্য হয়েই বাইরে থেকে আনাতে হয় বিভিন্ন ধরনের খাবার। তবে অনেক সময় বাইরে থেকে খাবার আনানো সম্ভব হয় না। তাই সমস্যায় পড়তে হয় বাড়ির মহিলাদের। এর জন্য আজ আপনাদের জানাবো একটি নতুন জলখাবারের রেসিপি যা রান্নাঘরে থাকা সামান্য কিছু জিনিস দিয়েই নিমেষে তৈরি করা যাবে এবং এটি পছন্দ হবে আট থেকে আশির।

উপকরণ :
১. আটা
২. নুন
৩. সর্ষের তেল
৪. জল
৫. জিরে
৫. পেঁয়াজ কুচি
৬. আদা বাটা
৭. রসুন বাটা
৮. লঙ্কাগুঁড়ো
৯. সেদ্ধ করা আলু
১০. হলুদ গুঁড়ো
১১. কাঁচালঙ্কা
১২. ডিম
১৩. চিজ

প্রণালী :
জলখাবারের এই সহজে রেসিপিটি বানানোর জন্য প্রথমে আটা নিয়ে তাতে সামান্য নুন, সর্ষের তেল এবং হালকা গরম জল দিয়ে নরম করে মেখে নিতে হবে। আটা ভালোমতো মাখা হয়ে গেলে তা থেকে লেচি বানিয়ে রুটির আকারে বেলে নিতে হবে। এবার রুটিগুলি সামান্য তেলে ভেজে নিয়ে একটি পাত্রে সরিয়ে রাখতে হবে। এরপর একটি কড়াইয়ে সামান্য তেল গরম করে তাতে জিরে, পেঁয়াজ কুচি, আদা বাটা, রসুন বাটা, লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, কাঁচালঙ্কা ও আগে থেকে সেদ্ধ করে ম্যাশ করে নেওয়া আলু দিয়ে কিছুক্ষণ ভালো মতো নাড়াচাড়া করে নামিয়ে নিতে হবে।

আলুর এই পুরটি তৈরি হয়ে গেলে এটি আগে থেকে ভেজে রাখা রুটির একপাশে দিয়ে তার ওপর গ্রেট করা ডিম সেদ্ধ এবং চিজ দিয়ে রুটির আরেকটি পাশ দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এভাবে একে একে প্রতিটি রুটির মধ্যে আলুর পুর দেওয়ার পর কড়াইয়ে সামান্য তেল গরম করে রুটির দুপিঠ ভালো মতন ভেঁজে নিতে হবে। দুপাশ লাল করে বেছে নেওয়ার পর তৈরি সুস্বাদু এই জলখাবারটি। সকাল অথবা সন্ধ্যেবেলায় টিফিনের পাশাপাশি এটি বাচ্চাদের টিফিন হিসেবেও দেওয়া যাবে। আবার হঠাৎ বাড়িতে অতিথি চলে এলেও এর মাধ্যমে অতিথি আপ্যায়ন করা যাবে।

Related Articles