×

৩০ বছর বয়সের পর ত্বকের যত্ন নেওয়ার ৫টি ঘরোয়া টিপস

ত্বক উজ্জ্বল ও সুন্দর করতে ব্যাবহার করুন এই পাঁচটি টিপস।

সারাদিন বাসে-ট্রামে দৌড়ঝাঁপের পর বাড়ি ফিরে শরীর চায় একটু আরামের, শরীরের সঙ্গে সঙ্গে কিন্তু ত্বকও ব্যতিক্রম নয়। রাতে যখন আপনি বিছানায় শরীরটা এলিয়ে দেন, সেই সময়টা আপনার ত্বকও কাজে লাগে। কারণ সারাদিনের ক্লান্তি কাটিয়ে ত্বকও নিজেকে তরতাজা করে তোলার জন্যে একটু সময় লাগে। তাই পরের দিন সকালে আপনার ত্বকের চাই বিশেষ পরিচর্যা। তবে মেয়েদের ত্বকের একটি সবচেয়ে বড় সমস্যা হল অকালে বার্ধক্য। যার জন্যে দায়ী মানসিক চাপ এবং খাওয়া-দাওয়ার অযত্ন, ত্বকের অযত্ন, যার ফলে ত্বক অকালে বুড়িয়ে যায়। তাই এই সব থেকে মুক্তি দিতে পারে এই পাঁচটি টিপস।

১) বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বক ঝুলে যেতে থাকে, তাই ত্বকের প্রয়োজন প্রতিদিন ভালো করে ম্যাসাজ করা। যার জন্যে মুখে কিছু ক্রিম লাগিয়ে সেটাকে গাল থেকে চোখের কাছ পর্যন্ত আঙ্গুল দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করতে হবে, তবে মনে রাখবেন মাসাজের সময় কখনো নিচের দিকে আঙুল টানবেন না।

২) বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চোখের ফোলা ভাব বেড়ে যায়, তাই সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে গ্রিন টি-এর টি-ব্যাগ যদি ১৫ মিনিট ফ্রিজে রেখে এই ঠান্ডাতে চোখের তলায় দেওয়া যায়, তাহলে ফোলা ভাব অনেকাংশে কমে যাবে।

৩) বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ঠোঁটের যত্ন নেওয়া উচিত। যারা ধূমপান করেন বা অতিরিক্ত লিপস্টিক পরেন, তাহলে ঠোঁটে কুপ্রভাব ফেলে ঠোঁট নষ্ট করে দেয়। তাই রাতে শুতে যাওয়ার সময় এক ফোটা নারকেল তেলের সঙ্গে একটি ভিটামিন এ ক্যাপসুল ভালো করে মিশিয়ে ঠোঁটের ওপরে মালিশ করলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

৪) এই সময় হাতের পায়ের চামড়া কুঁচকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে, তাই যারা বডিলোশন ব্যবহার করেন, তাঁরা বডি লোশনের সঙ্গে পরিমাণমতো গ্লিসারিন, গোলাপ জল এবং বেশ কয়েকটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল মিশিয়ে স্নানের পরে বা রাতে শুতে যাওয়ার আগে এই বডি লোশন হাতেপায়ে মালিশ করে শুয়ে পড়ুন।

৫) তবে সবার আগে প্রয়োজন সুখাদ্যাভ্যাস, উপযুক্ত পরিমাণে জল পান করা, শাকসবজি ফল খাওয়া, যোগাভ্যাস করা, হাঁটাহাঁটি করা এবং রাতের বেলা পর্যাপ্ত ঘুমিয়ে পড়া, যার ফলে এত কিছু যত্নই নিতে হবেনা। প্রাকৃতিক নিয়মেই আপনার শরীর সুস্থ থাকবে।

Related Articles