×

আমি অন্তঃসত্ত্বা জানতাম না, প্রকাশ্যে মুখ খুললেন অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী

টলিগঞ্জের প্রথম সারির দম্পতির মধ্যে অন্যতম রাজ চক্রবর্তী-শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় জুটি।

টলিগঞ্জের প্রথম সারির দম্পতির মধ্যে অন্যতম রাজ চক্রবর্তী-শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় জুটি। একদিকে সংসার, শুটিংয়ের কাজ, সন্তান পালন সবকিছুই একেবারে দায়িত্ব সহকারে সামলাচ্ছেন তারকা দম্পতি। কাজের থেকে একটি ছুটি পেলেও একসঙ্গে সময় কাটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন তারকা দম্পতি। ছেলে ইউভানও এখন অনেকটাই বড়। প্রায় চার বছরের উপর সংসার তাঁদের, ছেলের বয়সও ৩ ছুঁই ছুঁই। ২০১৮ সালের ৬ মার্চ সই-সাবুদের মাধ্যমে বিয়ের পর্ব সেরেছিলেন রাজ-শুভশ্রী। রূপকথার গল্পের থেকে কম রোমাঞ্চকর নয় রাজ-শুভশ্রীর প্রেমের গল্প। অনেক টানা পোড়েন, অনেক চড়াই-উতরাই এর মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে তাঁদেরকে।

তবে সক্কলকে চমকে দিয়ে এখন তাঁরা সুখী দম্পতি পাশাপাশি এক সন্তানের মা বাবাও। সিনে জগতের পাশাপাশি এই জুটি সোশ্যাল মিডিয়া দুনিয়াতেও দারুণ হিট। যুব সমাজের অনেকেই অনুপ্রেরিত হয়। বিয়ের দুই বছরের মাথায় ইউভানের জন্ম হয়। কিন্তু ইউভান (Yuvaan)-এর জন্ম নাকি আনপ্ল্যানড। সম্প্রতি একটি ন্যাশনাল চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী নিজেই জানালেন একথা। অভিনেত্রীর নজরকাড়া অভিনয় দক্ষতা দেখে মুগ্ধ ভক্তরা। তাঁর জীবনটাও অনেকটাই সুন্দর সহজ-সরল ছকে বাঁধা।

সম্প্রতি ওই সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী মা হওয়া থেকে শুরু করে তাঁর অভিনয় জীবন সম্পর্কে অনেক কথাই জানালেন। ২০১৮ সালে পরিচালক রাজের (Raj Chakraborty) সঙ্গে বিয়ে হয় শুভশ্রীর। ২০২০ সালের ১২ সেপ্টেম্বর ইউভানের জন্ম হয়। সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন যে, অনেকেই ভাবেন, অভিনেত্রীদের বিয়ে হয়ে যাওয়া মানে কেরিয়ার শেষ, তা কিন্তু একেবারেই নয়। পাশাপাশি অভিনেত্রী আরও জানান, “১৭ বছর বয়সে আমি ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছি। অনেকেই বলেছেন ‘অভিনেত্রীর কেরিয়ার ১০ বছরের। বিয়ে হয়ে গেলেই তুমি শেষ।’ কিন্তু মানুষ বদলেছে। আর তাইতো আমরা বিভিন্ন বিষয়ের উপর কাজ করতে পারছি। রাজের সঙ্গে আমার সম্পর্ক সহজ-সরল নদীর প্রবাহের মতো। অভিমান ছবির শ্যুটিংয়ের সময় বিষয়টি ঘটে। ও আমাকে এসে ওর মনের কথা জানায়। একেবারে সরাসরি বউ হওয়ার প্রস্তাব দেয়। আর আমিও রাজি হয়ে যাই।”

২০১৭ সালে তাঁরা আইনি বিয়ে করেন। গর্ভবতী থাকালীন তিনটি ছবির কাজ একসঙ্গে করেন অভিনেত্রী। ‛হাবজি গাবজি’ শুটিংয়ের সময় হঠাৎই অভিনেত্রীর মনে হয় তাঁর জীবনে নতুন কেউ এসেছে, তখনই তিনি টেস্ট করান। আর তারপরই রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এমনকি ওই সময়েই ‛ইন্দুবালা’ র শ্যুটিংয়ের জন্য ৩ ঘন্টা মেকআপ করতে হত অভিনেত্রীকে। দেড় ঘন্টা ধরে মেকআপ তুলতেন। সবমিলিয়ে এক দারুন অভিজ্ঞতার সাক্ষী হয়েছিলেন নায়িকা।

Related Articles