×

আগামী বছরেই ঐন্দ্রিলাকে বিয়ে করতেন সব্যসাচী, নীরবতা ভাঙলেন প্রয়াত অভিনেত্রী মা

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা ও অভিনেতা সব্যসাচীর প্রেমের কাহিনী বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার অন্যতম একটি টপিক।

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা ও অভিনেতা সব্যসাচীর প্রেমের কাহিনী বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার অন্যতম একটি টপিক। ক্যান্সার হোক কিংবা জীবনের গল্প সবেতেই তারা ছিলেন বেশ খোলামেলা স্বভাবের। কিন্তু দুজনের সম্পর্ক কখনো কি পরিণতির কথা ভাবেনি? কখনো কি দুজন দুজনের সম্পর্ককে বিয়ে পর্যন্ত গড়ানোর পরিকল্পনা করেনি? এবার সে নিয়েই খোলসা করলেন প্রয়াত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার (Aindrila Sharma) মা শিখা শর্মা।

দেখতে দেখতে কেটে গিয়েছে প্রায় ৯ টা দিন। সংসারের সমস্ত মায়া ত্যাগ করে না জানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। সকলের প্রিয় অভিনেত্রীর মৃত্যুতে ও ঘরের মেয়েকে হারিয়ে ভেঙে পরেছে তাঁর অনুরাগীদের পাশাপাশি তাঁর আপন পরিবার। তাই মেয়ের জিনিসপত্র নিয়েই স্মৃতিচারণায় মগ্ন অভিনেত্রীর বাবা-মা ও দিদির। কিন্তু এতো বড়ো একটি শোকের মাঝেই নিজেদের ভালোভাবে সামলে রাখার ক্ষমতা রেখেছেন অভিনেত্রীর পরিবার। যার দরুন এখনো অসুস্থতা ঘিরে ধরতে পারেনি শর্মা পরিবারকে। অন্যদিকে অভিনেত্রীর আপন মানুষটিও চুপচাপ হয়ে গিয়েছে। অভিনেত্রীর পরিবারের পাশাপাশি এই মানুষটিও ছিল অভিনেত্রীর একদম আপন। আর যার প্রমাণ মিলেছে ঐন্দ্রিলার মায়ের ফেসবুক পোস্ট ঘিরেই। তিনি একটি পোস্টে অভিনেত্রীকে সমর্থন করে লিখেছেন, ‘আমার সব্যর ঐন্দ্রিলা’।

তবে দুজনের সম্পর্ক এতদূর গড়ালেও তারা কি কখনো বিয়ের কথা ভাবেনি? আর এরই উত্তর দিলেন খোদ অভিনেত্রীর মা শিখা শর্মা। তিনি জানান, আগামী বছর ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাস নাগাদ ওদের বাড়িতে আসার কথা ছিল। পাকা দেখার কথা ছিল দুই পরিবারের মধ্যে। আর এনিয়ে সব্যসাচীর সাথে কথাও হয় অভিনেত্রীর মায়ের। কিন্তু তারই মাঝে একটি ঝড়ে ওলটপালট হয়ে যায় তাঁদের সকলের জীবন। আক্ষেপের সুরে শিখাদেবি জানান, ‘পরিকল্পনা তো অনেক কিছুই ছিল। কিন্তু….’। তাঁর এই কিন্তুই বলে দেয় মাতৃশোকের গভীরতা। তিনি কাঁপাকাঁপা কন্ঠে আরো বলেন যে, ‘সব্য আর আমার মিষ্টি হরিহর আত্মা।’

প্রসঙ্গত চলতি মাসের গত ২০ নভেম্বর সকলকে কাঁদিয়ে না জানার দেশে পাড়ি দিয়েছেন ‘জিয়ন কাঠি’ ধারাবাহিক খ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। টানা ২০ দিন ব্রেন স্ট্রোকের সাথে লড়াই করে শেষমেষ হার্ট অ্যাটাকের কাছে হার স্বীকার করে তিনি তারাদের দেশে হারিয়ে যান। এরপর থেকেই ভেঙে পরে তাঁর পরিবারের পাশাপাশি তাঁর অনুরাগীরাও। এছাড়াও সহমর্মী হয়েছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রি। বর্তমানে ফেসবুক থেকেও বিদায় নিয়েছেন তাঁর প্রেমিক সব্যসাচী। এখন সবকিছু থেকে দূরে রেখেছেন নিজেকে।

Related Articles