×

হাতে নেই কাজ, শেষমেশ এঁটো বাসন মাজছেন শ্রাবন্তী! অভিনেত্রীর এমন দুর্দশা থেকে চিন্তিত ভক্তরা

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি।

তিনি বরাবরই নিজের মতো করেই জীবন কাটাতে ভালোবাসেন। তাই নেটিজেনদের কোনও কথাই তিনি কোনোদিনও গায়ে মাখেন নি। কিন্তু নেটিজেনদের তো মাথাব্যাথার শেষ নেই তাঁকে নিয়ে। তাইতো তাঁর জীবনের পান থেকে চুন খসলেই তা সোজাসুজি সোশ্যাল মিডিয়ার ট্রেন্ডিং নিউজে পরিনত হয়ে যান তিনি। হ্যাঁ, সম্প্রতি, অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়কে দেখা গেল লোকের বাড়ির বাসন মাজতে। ভাবছেন তো কি ব্যাপার! চিন্তার কিছু নেই! আসলে নেটিজেনরা সবসময়ই উৎসুক থাকে তারকাদের জীবনের নানারকম ঘটনা জানার জন্যে। তাঁদের আসন্ন ছবি, ব্যক্তিগত জীবন সবটাই জানতে মানুষ মরিয়া।

তাঁরা কি খাচ্ছেন, কি পড়ছেন, তাঁদের বাড়িঘর কেমন সবটা নিয়েই মানুষের কৌতুহলের শেষ নেই। যদিও মানুষের কাছে এখন সবটাই উজাড় করে দিচ্ছেন তারকারা নিজেই। সোশ্যাল মিডিয়াই সমস্ত সুযোগ করে দিচ্ছে। ভক্তদের কাছাকাছি পৌঁছনোর জন্যে তারকারা ভিন্ন ভিন্ন অবতারে সবসময়েই দেখা দিচ্ছে। যেন নিজেকে নিজেই কটাক্ষের সম্মুখীন করছে। এদিকে অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়কে (Srabanti Chatterjee) নিয়ে নেটিজেনদের চিন্তার শেষ নেই। বিশেষ করে তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে। সবটাই এখন মানুষের কাছে স্পষ্ট। এবার দেখা গেল কলতলায় বসে তাঁকে বাসন মাজতে। ভিডিওতে তেমনই দেখা গিয়েছে।

ব্যাপারটা ঠিক কী? আসলে এর পিছনের রহস্য জানলে অবাক হবেন আপনিও। একবার জি-বাংলার মঞ্চে দেখানো হয়েছিল নতুন রিয়েলিটি শো ‘কে নং-১? দিদি নাকি দাদা’। সেখানেও শোয়ের সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন রচনার (Rachana Banerjee) কাঁধেই। সেখানেই এক রা পুরুষ বনাম মহিলার প্রতিযোগিতার নানা রাউন্ডে দেখানো হয় বাসন মাজতে বাধ্য হয়েছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তবে শুধু তিনি একা বাসন মাজেননি। তাঁর সঙ্গে বাসন মেজেছেন বাবুল সুপ্রিয়ও। এবার সেই মুহূর্ত গুলি আরও একবার ভাইরাল হল সোশ্যাল মিডিয়াতে।

প্রসঙ্গত ‘কে নং-১? দিদি নাকি দাদা’ শোয়ের ওপেনিং রাউন্ডে উপস্থিত ছিলেন একগুচ্ছ তারকা। পুরুষদের তরফে ছিলেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী (Raj Chakraborty), গায়ক অভিজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Abhijeet Chatterjee), গায়ক বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। মহিলাদের মধ্যে ছিলেন তিন অভিনেত্রী- শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় (Subhashree Ganguly), মিমি চক্রবর্তী (Mimi Chakraborty) ও শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়।

Related Articles